এশিয়ার প্রথম দেশ হিসেবে সহকামী বিবাহ বৈধতা পেল তাইওয়ানে

taiwan

রিদীপ দাস, ১৭মে ২০১৯: ১৭ মে। এই দিনটি শুধু তাইওয়ানের ইতিহাসে নয়, গোটা এশিয়া মহাদেশের এক বিশেষ দিন। আজ থেকে তাইওয়ান প্রেসিডেন্ট সমকাম বিবাহ আইনসম্মত ঘোষণা করে।

এশিয়ার মধ্যে তাইওয়ানই প্রথম দেশ হিসেবে এই পদক্ষেপকে আইনি স্বীকৃতি দিল। ২ বছর আগেই সেখানকার সর্বোচ্চ আদালত সমকাম বিবাহের পক্ষে মত দিয়েছিল। পার্লামেন্টে বিল এনে বিষয়টি আইনসম্মত করায় প্রক্রিয়ার সময়সীমা ছিল ২৪ মে, ২০১৯। কিন্তু তার আগেই শুক্রবার পার্লামেন্ট সমকাম বিবাহকে আইনি ঘোষণা করা হয়।

এরপরই বাঁধভাঙা উচ্ছাসে মেতে ওঠেন রাজধানী টাইপেইর সমকামী যুগলরা। উৎসব শুরু হয়ে যায় দেশের অন্যান্য প্রান্তেও।বহু লড়াই, যুক্তি, তর্ক, চড়াই-উতরাইযের দিনগুলো অবশেষে শেষ। শেষ পর্যন্ত শান্তি । এলো সাফল্য । উড়লো রামধনু পতাকা । হাজার হাজার মানুষ রামধনু পতাকা নিয়ে নেমে পড়ল রাস্তায় ।

এ দিন তাইওয়ান পার্লামেন্টে সহকামি বিবাহ বিষয়টি নিয়ে ভোটাভুটি পর্যন্ত হয়। সেখানে সংখ্যাগরিষ্ঠ ডেমোক্রেটিক প্রোগ্রেসিভ পার্টি বিলটিকে সমর্থন করেন। পক্ষে ভোট পরে ৬৬ টি আর বিপক্ষে ভোট পরে ২৭ টি। স্বাভাবিক ভাবে বিলটি পাস হয়ে যায় পার্লামেন্টে। বিলটি পাশ হয়ে যাওয়া মানে তা আইনে পরিণত হয়। আর দ্বিতীয়বারের জন্য প্রেসিডেন্ট থাই ইং ওয়েনের একই পদে থাকার রাস্তা পরিষ্কার হয়ে যায়। ২০২০ সালে এখানে প্রেসিডেন্ট নির্বাচন । তার আগে এই সমকামী বিবাহ আইনি স্বীকৃতি পাওয়ায় ফের তিনি ক্ষমতায় ফিরবেন বলে মনে করা হচ্ছে।

তাইওয়ানের প্রেসিডেন্ট সাই ইং-ওয়েন সংসদের সিধান্তে প্রশংসা করে টুইট করেছেন। তিনি এই সিদ্ধান্তকে ‘সত্যিকারের সমতার দিকে বড় পদক্ষেপ’ হিসেবে উল্লেখ করেছেন।

noychoy

Leave a Reply

Your e-mail address will not be published. Required fields are marked *

1
welcome to "NOYCHOY".Thanks for joining our community . we will reply you soon.
Powered by