অস্বাভাবিক মৃত্যু দম্পত্তির:ঘোলা

নির্মিয়মান হাইড্রেনের পাঁচিল ভেঙে মৃত ১, জখম ৩ কর্মী:মধ্যমগ্রাম

অনিত দাস,২৮জুলাই ২০১৯: দম্পতির অস্বাভাবিক মৃত্যু নিয়ে চাঞ্চল্য ছড়ায় গোটা এলাকায়। ঘটনাটি ঘটেছে ঘোলার ইন্দ্রলোক এলাকায়। শনিবার সকালে শোয়ার ঘর থেকে দম্পতির ঝুলন্ত দেহ উদ্ধার করে পুলিশ।

পুলিশ সুত্রে খবর, ইন্দ্রলোকের একটি বাড়িতে প্রায় দেড় বছর ধরে ভাড়াটিয়া ছিলেন ওই দম্পতি। মৃত দম্পতির নাম বিপ্লর চক্রবর্তী (৪৫) ও শিপ্রা চক্রবর্তী (৩৭)। তাদের ১৪ বছরের একটা মেয়ে রয়েছে। বিপ্লব বাবু পেশায় বিধাননগরে নিরাপত্তাবক্ষীর কাজ করতেন।

প্রথমিক তদন্তের পর পুলিশ জানায়, বহুদিন ধরেই বিপ্লব ও শিপ্রা দেবীর মধ্যে অশান্তি চলছিল। ঘটনাটি খুন না আত্মঘাতী তা-ও খতিয়ে দেখছে পুলিশ। তবে ঘটনায় কোন সুইসাইড নোট মেলেনি বলে পুলিশ জানায়। এছাড়া পুলিশ আরও জানায় যে, ঘরের সিলিং ফ্যানের সঙ্গে গলায় গামছার ফাঁস দিয়ে ঝুলেছিলেন বিপ্লব। আর জানলা থেকে কুকুর বাঁধার বেল্ট দিয়ে গলায় ফাঁস দেওয়া অবস্থায় ঝুলছিল শিপ্রার দেহ।“

দম্পতির মেয়ে বলে যে,”আমি পাশের ঘরে ঘুমাচ্ছিলাম।সলালে ঘুম থেকে উঠে বাবা-মা-র ঘর বন্ধ দেখে আমি পিছনের দরজা দিয়ে ঘরে গিয়ে দেখি এই।“ দম্পতির মেয়ের চেচামেচি শুনে ছুটে আসেন প্রতীবেশিরা। বাড়িওয়ালা সুব্রত দাস বলেন যে,” বিষটি জেনে ঘোলা থানায় খবর দিই। পুলিশ এসে ঘরে ঢুকে দেহ দুটি উদ্ধার করে। শুক্রবার রাতেও ওই দাদার সাথে কথা হয়ে ছিল ,কিন্তু কিছু বুঝতে পারিনি।“



noychoy

Leave a Reply

Your e-mail address will not be published. Required fields are marked *

1
welcome to "NOYCHOY".Thanks for joining our community . we will reply you soon.
Powered by